২০শে জানুয়ারি, ২০১৮ ইং, ৭ই মাঘ, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, ৩রা জমাদিউল-আউয়াল, ১৪৩৯ হিজরী

কার প্রেমে হাবুডুবু খাচ্ছেন বিল গেটস কন্যা?

জানুয়ারি ৯, ২০১৮, সময় ৮:৫৪ অপরাহ্ণ

বিশ্বের শীর্ষ ধনী ও টেক জায়ান্ট মাইক্রোসফট’র প্রতিষ্ঠাতা বিল গেটস কন্যার প্রেম নিয়ে আগ্রহ লাখো তরুণের। কিন্তু সবার হৃদয় ভেঙে দিয়ে এক মিশরীয় যুবকের প্রেমে মগ্ন ২১ বছরের সুন্দরী জেনিফার।

ঠিক যেন ঘোড়ায় চড়ে জেনিফারের জীবনে প্রবেশ করলো এই ঘোড়সওয়ার। মিশরীয় এই যুবকের নাম নায়েল নেসার।

ফরাসি দৈনিক লে প্যারিসিয়ান’র এক প্রতিবেদনে দাবি করা হয়, বিল গেটস কন্যা আসলে এই ঘোড়সওয়ারের প্রেমেই পড়েছেন।

নেসারকে সম্প্রতি গেটস পরিবারের সঙ্গে দেখা গেছে। ইন্টারন্যাশনাল জাম্পিং মন্টি কার্লোর ১২তম পর্বে তাদেরকে একসঙ্গে দেখা যায়।

লে প্যারিসিয়ান’র প্রতিবেদনে বিস্তারিত বলা না হলেও এতে দাবি করা হয়, নেসারে ব্যাপারে আগ্রহী জেনিফার গেটস। জেনিফারকে নিয়ে নেসারের অনুভূতিও একই রকমের বলা জানা গেছে।

ওই ক্রীড়া প্রতিযোগিতাতে দুজনকে সাইডলাইনে একসঙ্গে দেখা যায়। বাবা বিল গেটসও সেখানে উপস্থিত ছিলেন।

এদিকে সৌদি আরবভিত্তিক ইংরেজি সংবাদমাধ্যম আল-আরাবিয়া নেসারের ব্যাপারে খোঁজ নিয়ে জানায়, ২৬ বছর বয়সী নেসারের মা-বাবা মিশরীয়। বাবা-মায়ের কর্মস্থল কুয়েতে তার শৈশব কেটেছে। এরপর ২০০৯ সালে ক্যালিফোর্নিয়াতে চলে আসার পর ঘোরদৌড়ে তার আগ্রহ জাগে।

ক্যালিফোর্নিয়ার স্ট্যানফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ে ব্যবস্থাপনা ও অর্থনীতিতে পড়াশুনা করেছেন নেসার। তিনি একজন পেশাদার ঘোড়দৌড়বিদ। এই মিশরীয় তরুণ ইংরেজি, ফরাসি ও আরবিতে অনর্গল কথা বলতে পারদর্শী।

নাসের ২০১৭ সালের ফেব্রুয়ারিতে এফইআই ওয়ার্ল্ড কাপ জিতেন ৩৮.১৫ সেকেন্ড সময় নিয়ে।

আবারো রেলে কালো বিড়াল!

রেলের কালো বিড়াল বলতে কার কথা বলা হয় তা সবারই জানা। কেন রেলকে কালো বিড়াল বলা হচ্ছে তাও সবার জানা। কিন্তু এই কালো বিড়ালের হাত থেকে কোন ভাবেই যেন বাংলাদেশ রেল মুক্তি পাচ্ছে না। সাম্প্রতিক বাংলাদেশ রেলে খালাসি কর্মচারী নিয়োগ নিয়ে রেলওয়েতে আবার ‘কালো বিড়াল’ ভর করেছে দাবি করেছেন সরকার-সমর্থিত রেলওয়ে শ্রমিক কর্মচারী সংগ্রাম পরিষদ।

সংগঠনটির নেতাদের স্পষ্ট দাবি, রেলওয়েতে ৮৬৫ জন খালাসি নিয়োগের প্রক্রিয়া চূড়ান্ত করতে কোটি কোটি টাকার বাণিজ্য চলছে। রেলপথমন্ত্রীর আশপাশে থাকা লোকজনের সমন্বয়ে গঠিত একটি সিন্ডিকেট এই বাণিজ্যের সাথে জড়িত এবং এরা সবাই রেলমন্ত্রীর অভয়েই এমন কাজ করছে।

মন্ত্রী-সাংসদসহ দলীয় নেতাদের সুপারিশের ভিত্তিতে খালাসি পদে লোক নিয়োগ দিতে ‘চাপ’ থাকার কথা স্বীকার করেছেন রেলওয়ের পূর্বাঞ্চলের মহাব্যবস্থাপক (জিএম)। নিজ বিভাগের এক উচ্চপর্যায়ের বৈঠকে তিনি এই কথা বলেছেন।

গত ২৭ ডিসেম্বর ঢাকায় রেল ভবনে ‘অপারেশনাল রিভিউ’ বৈঠকে খালাসি পদে নিয়োগ অসহায়ত্বের কথা প্রকাশ করেন তিনি।

ট্রেনের ইঞ্জিন ও বগি পরিচ্ছন্ন রাখার কাজে নিয়োজিত কর্মী রেলওয়েতে খালাসি নামে পরিচিত। সরকারি বেতন স্কেলের সর্বনিম্ন ধাপে (২০তম গ্রেড) তাঁরা অবস্থান করেন। খালাসিরা সরকারি চাকরিতে চতুর্থ শ্রেণির কর্মচারী হিসেবেও পরিচিত। এই পদের মূল বেতন ৮ হাজার ২৫০ টাকা। রেলওয়েতে ৮৬৫ জন খালাসি নিয়োগের প্রক্রিয়া চলছে এখন। এই পদে নিয়োগের জন্য ২০১৫ সালে মৌখিক পরীক্ষা নেওয়া হয়। মামলার কারণে এত দিন নিয়োগপ্রক্রিয়া স্থগিত ছিল।

Comments

comments

আজকের সব খবর

error: Content is protected !!