২০শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ৮ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, ৪ঠা জমাদিউস-সানি, ১৪৩৯ হিজরী

বউয়ের ভয়ে পালিয়ে ১০ বছর জঙ্গলে!

অক্টোবর ২১, ২০১৭, সময় ২:২৭ পূর্বাহ্ণ

যুক্তরাজ্যের বাসিন্দা ম্যালকম অ্যাপলগেট। ঠিকঠাকই চলছিল তাঁর জীবন। বিপত্তিটা শুরু হয় বিয়ের পরেই। স্ত্রী নাকি বিভিন্ন উপায়ে তাঁর জীবন একেবারে নাজেহাল করে ছাড়েন। শেষমেশ আর কোনো পথ খোলা না পেয়ে পালিয়ে যান জঙ্গলে। কাটিয়ে দেন পাক্কা ১০টি বছর।

সম্প্রতি তাঁর জীবনের গল্পটি এভাবেই লন্ডনের ‘ইমাউস গ্রিনউইচ’ নামে একটি বাস্তুহীনদের আশ্রয়দাতা সংস্থাকে জানিয়েছেন ষাটোর্ধ্ব এই প্রৌঢ়।

এই ১০ বছরে সবাই ধরেই নিয়েছিলেন, অ্যাপলগেট আর বেঁচে নেই। তবে সব আশঙ্কা মিথ্যা প্রমাণ করে এক দশক পরে বোনকে ফোন করেন তিনি। ভাইয়ের কাছ থেকে এত বছর পর ফোন পেয়ে চমকে যান তিনিও।

অ্যাপলগেটের গল্পটি তাঁর মুখের ভাষাতেই তুলে ধরা হয়েছে ‘ইমাউস গ্রিনউইচ’-এর ওয়েবসাইটে। সেখানে অ্যাপলগেট বলেন, ‘বিয়ের পর আমার জীবন দিন দিন বিশৃঙ্খল হতে থাকে। আমি যতই কাজ করতাম, আমার স্ত্রী ততই রেগে যেত। আমি বেশিক্ষণ বাড়ির বাইরে থাকি, এটি সে পছন্দ করত না।’

‘তার এই কর্তৃত্বপনা দিন দিন বাড়ছিল। সে চাইছিল, আমি যেন কাজ কমিয়ে দিই। বহু বছর তার সঙ্গে এক ছাদের নিচে কাটানোর পর সিদ্ধান্ত নিই, নিজের ভালোর জন্যই চলে যেতে হবে। এরপর কাউকে, এমনকি আমার পরিবারকেও না জানিয়ে, আমি সবকিছু গুছিয়ে বের হয়ে যাই… একেবারে ১০ বছরের জন্য হারিয়ে যাই।’

অ্যাপলগেট আরো বলেন, ‘পালানোর পর কিংসটনের কাছে একটি জঙ্গলে আস্তানা গাড়ি। এ সময় স্থানীয় বৃদ্ধদের জন্য একটি কমিউনিটি সেন্টারের বাগানে কাজ করেছিলাম আমি।’

‘ভালোই কাটছিল দিনগুলো। কিন্তু পরে ইমাউস গ্রিনউইচের কথা শোনার পর ভেবে দেখি, সেটিই আমার জন্য উপযুক্ত স্থান। সেখানে গিয়ে আমি একটি সাক্ষাৎকার দিই এবং থাকা শুরু করি।’

বর্তমানে স্ত্রী ছাড়া জীবনে বেশ ভালো আছেন বলে জানান অ্যাপলগেট। বিভিন্ন দাতব্য সংস্থার জন্য অনুদান সংগ্রহ করে বেড়ান তিনি। জানান, শেষ পর্যন্ত বিয়ের আগের জীবন ফিরে পেয়েছেন তিনি।

Comments

comments




error: Content is protected !!