১৬ই ডিসেম্বর, ২০১৭ ইং, ২রা পৌষ, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, ২৮শে রবিউল-আউয়াল, ১৪৩৯ হিজরী

কাঁচি দিয়ে পোশাক কেটে কিশোরীকে নগ্ন করে উল্লাস,,

নভেম্বর ৪, ২০১৭, সময় ১:০৮ অপরাহ্ণ

পাকিস্তানের খাইবার পখতুনখাওয়া প্রদেশ। সেখানকার ডেরা ইসমাইল খান শহর থেকে প্রায় ৮০ কিলোমিটার দূরের প্রত্যন্ত একটি বসতি চৌধান। গত সপ্তাহে এখানেই ঘটে গেছে এক নৃশংস, ভয়াল ঘটনা। এক নারীর সঙ্গে দীর্ঘদিন গোপন প্রণয় ছিল এক কিশোরীর ভাইয়ের। এ কথা প্রকাশ পাওয়ার পর ১৬ বছর বয়সী ওই কিশোরীকে স্থানীয়রা নগ্ন করে প্রকাশ্য দিনের আলোয় ঘুরিয়েছে গ্রাম। এর প্রতিবাদে কেউ সামনে এলেই তাকে অস্ত্রের ভয় দেখানো হয়েছে।

এ ঘটনায় কমপক্ষে আটজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। আরো একজনকে খুঁজছে। এ খবর দিয়েছে অনলাইন বিবিসি। নির্যাতিত ওই কিশোরী স্থানীয় একটি পুকুর থেকে পানি সংগ্রহ করতে যাচ্ছিলো। এ সময় তার ওপর হামলে পড়ে একদল মানুষ। ওই কিশোরী স্থানীয় সাংবাদিকদের বলেছেন, আমি ও আমার এক চাচাতো বোন আমাদের কলস ভর্তি করে বাড়ি ফিরছিলাম।

এ সময় তিনজন পুরুষ আমাদেরকে বাধা দেয়। তারা চারদিক থেকে আমাদেরকে ঘিরে ধরে। এ সময় আমি পড়ে যাই। ওই নরপিশাচরা কাঁচি দিয়ে আমার কাপড় কেটে আমাকে নগ্ন করতে থাকে। তখন আমার চাচাতো বোন তার ওড়না দিয়ে আমার লজ্জা ঢাকার চেষ্টা করে। কিন্তু তারা তাও কেড়েনেয়। আমি এক পর্যায়ে পালানোর চেষ্টা করি। কাছের কোনো একটি বাড়ি লক্ষ্য করে দৌড়াতে থাকে। কিন্তু আমাকে অনুসরণ করতে থাকে তারা। আমি ওই বাড়ির একটি খাটের আড়ালে লুকিয়ে পড়ি।

কিন্তু তারা সেখান থেকে আমাকে ধরে ফেলে। টেনে নিয়ে যায় বাইরে। এ সময় এক প্রতিবেশী বাধা দেয়ার চেষ্টা করেন। কিন্তু অস্ত্র দেখিয়ে তাকে ভয় দেখায় তারা। এ ঘটনা চলতে থাকে প্রায় এক ঘন্টা। তারপর তারা আমাকে ছেড়ে যায়। আমি কাঁদতে কাঁদতে পাশেই এক চাচার বাড়ি ছুটে যাই।

সেখানে গিয়ে কাপড় জড়িয়ে লজ্জা ঢাকি। স্থানীয় মিডিয়ার সাংবাদিকদের কাছে এ বর্ণনা যখন তিনি দিচ্ছিলেন তখন তার সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন তার মা ও চাচাতো বোনেরা। নির্যাতিত ওই কিশোরীর মা একজন বিধবা। তিনি সংবাদ সম্মেলনে বলেছেন, লোকজনের কাছে এ খবর পেয়ে আমি দৌড়ে ছুটে যাই রাস্তায়। দেখতে পাই একটি দেয়ালের পাশে দাঁড়িয়ে আছে

অস্ত্রধারী কিছু লোক। আমার মেয়ের কি হয়েছে জানতে চাই। তার উত্তর না দিয়ে উল্টো আমাকেইই জিজ্ঞেস করে, আমার ছেলে কোথায়। এ সময় তারা আমাকে নানাভাবে তিরস্কার দিতে থাকে। রাস্তার ঢালে দেখতে পাই কিছু কাপড় পড়ে আছে, যা আমার মেয়ে পরা ছিল।

Comments

comments