২০শে জানুয়ারি, ২০১৮ ইং, ৭ই মাঘ, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, ৩রা জমাদিউল-আউয়াল, ১৪৩৯ হিজরী

সুইমশুটে ‘পদ্মাবতী’, দাবানল সোশ্যাল মিডিয়ায় ! ভারতে ‘অঘোষিত ব্যান’

নভেম্বর ২৫, ২০১৭, সময় ৬:১৭ পূর্বাহ্ণ

সিনেমায় খলনায়ক আলাউদ্দিন খিলজির সঙ্গে রানি পদ্মাবতীর ‘অন্তরঙ্গতা’ এবং রাজপুতদের ‘খাটো’ করে দেখানো, মূলত এই দুই অভিযোগেই আটকে দেওয়া হয়েছে ছবির মুক্তি বলে শোনা যাচ্ছে। ভারতে ‘অঘোষিত ব্যান’। ছাড়পত্র মিলিছে সাহেবদের দেশে। ব্রিটিশ সেন্সর বোর্ডের সার্টিফিকেশনে ব্রিটেনে ১ ডিসেম্বর মুক্তি পাচ্ছে পদ্মাবতী। আর এই টালবাহানার মধ্যেই সামনে এল ‘পদ্মাবতী’র হট ছবি। ফিল্মফেয়ার ম্যাগাজিনের কভার পেজে দীপিকা পাড়ুকোনের সুইম কস্টিউমের ‘হট অবতার’ ইতিমধ্যেই সোশ্যাল মিডিয়ায় দাবানলের মত ছড়িয়ে পড়েছে।

ভারতে যখন তাঁকে জীবন্ত জ্বালিয়ে দেওয়া, মাথা কেটে নেওয়ার মত হুমকি আসছে, দীপিকা তখন শ্রীলঙ্কায়। ফিল্মফেয়ারের জন্য লঙ্কা পারের সমুদ্র সৈকতে বেশ খোলামেলা বলিউডের এই তারকা। যেন কিছুই হয়নি! তাঁর নিরাপত্তার জন্য সর্বসময়ের রক্ষী রেখেছে প্রশাসন। প্রাণনাশের হুমকি পাওয়ার পর চিন্তিত গোটা বলিউড। তবে দীপিকা আছেন দীপিকাতেই। সঞ্জয়লীলা বনশালীর পদ্মাবতী ছবিতে মুখ্য ভূমিকায় অভিনয় করেছেন দীপিকা পাড়ুকোন। সিনেমায় খলনায়ক আলাউদ্দিন খিলজির সঙ্গে রানি পদ্মাবতীর ‘অন্তরঙ্গতা’ এবং রাজপুতদের ‘খাটো’ করে দেখানো, মূলত এই দুই অভিযোগেই আটকে দেওয়া হয়েছে ছবির মুক্তি বলে শোনা যাচ্ছে। যদিও ছবির কুশীলবরা সরব হয়েছেন বাক্‌ স্বাধীনতার বিষয়ে। পাল্টা শাসানিতে বিজেপির তরফে বলা হচ্ছে, ‘বাক স্বাধীনতা মানে ইতিহাসের বিকৃত করা নয়’।

পুরুষের চেয়ে নারীর ক্ষমতা বেশি: শাহরুখ

“আমি আর ফরহান সাধারণত ম্যানলি হিসেবে বিবেচিত হই না। কারণ, আমারা জেন্টেল এবং অনেকটা লাজুক প্রকৃতির। মহিলাদের আমরা সবসময় আমাদের হৃদয়ে স্থান দিয়েছি।” আরও একধাপ এগিয়ে তিনি ‘মহিলাদের ভয় পান’ এমন মন্তব্যও করেন শাহরুখ।
রকের ঠেকে নারী ক্ষমতায়নের কথা! নিজের স্বভাবোচিত রোম্যান্টিক মুড থেকে বেরিয়ে এসে পঞ্চাশোর্ধ খান সাহেব লালকার কনসার্টে দিলেন সমাজ সচেতনতার বার্তা। এদিন ফরহানের ধর্ষণ এবং বৈষম্য বিরোধী সংগঠন ‘মর্দ’-এর অনুষ্ঠানে শাহরুখ বললেন, “পুরুষের থেকে নারী অনেক বেশি ক্ষমতাশালী।” এখানেই শেষ নয়। পপিউলেশন ফাউন্ডেশন অব ইন্ডিয়া আয়োজিত এই কনসার্টে কিং খান আরও বলেন,”আমি আর ফরহান সাধারণত ম্যানলি হিসেবে বিবেচিত হই না। কারণ, আমারা জেন্টেল এবং অনেকটা লাজুক প্রকৃতির। মহিলাদের আমরা সবসময় আমাদের হৃদয়ে স্থান দিয়েছি।” আরও একধাপ এগিয়ে তিনি ‘মহিলাদের ভয় পান’ এমন মন্তব্যও করেন শাহরুখ।

রোম্যান্স কিং মনে করেন, মা-মেয়ে-স্ত্রী-বোন-প্রেমিকাকে ভয় পাওয়ার মধ্যে লজ্জার কিছু নেই। একই সঙ্গে লালকার-এর মঞ্চ থেকে মহিলাদের ওপর হওয়া নারকয়ীয় অত্যাচারের নিন্দাও করেন তিনি। মহিলাদের ওপর যেকোন হিংসাই যে অত্যন্ত খারাপ তা বলেন শাহরুখ। এই কনসার্টে গীতিকার এবং সাহিত্যিক জাভেদ আখতারের একটি কবিতাও আবৃতি করেন কিং খান।

উল্লেখ্য, লালকার মূলত মহিলা এবং মেয়েদের ওপর হওয়া অত্যাচারের বিরুদ্ধে একটি প্রতিবাদী কন্ঠ। এই কনসার্টে ফরহানের ‘মর্দ’, ‘বস আব বহত হো গ্যয়া’ প্রচারাভিযানের অংশ হিসেবে কাজ করেছে। লালকার-এর এই কনসার্টে শাহরুখ ছাড়াও অংশগ্রহণ করেছিলেন সালিম-সুলাইমান, আরমান মালিক, পাপন, নিতি মোহন, সুকৃতি কক্কর এবং প্রকৃতি কক্কর।

Comments

comments

আজকের সব খবর

error: Content is protected !!