১৯শে জানুয়ারি, ২০১৮ ইং, ৬ই মাঘ, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, ২রা জমাদিউল-আউয়াল, ১৪৩৯ হিজরী

আর্জেন্টিনা দলে আসছে ব্যাপক পরিবর্তন: মেসি

ডিসেম্বর ১৭, ২০১৭, সময় ৬:৪৫ পূর্বাহ্ণ

বার্সেলোনার হয়ে সব জিতেছেন লিওনেল মেসি। নিজ দেশ আর্জেন্টিনার হয়ে জিতেছেন যুব বিশ্বকাপ। তবে এখনো নিজভূমের হয়ে স্বপ্নের বিশ্বকাপটা অধরা রয়ে গেছে খুদে জাদুকরের। একক নৈপুণ্যে গেলো বিশ্বকাপে সোনার ট্রফিটা প্রায় ছুঁয়েই ফেলছিলেন তিনি। তবে ফাইনালে জার্মানির কাছে ১-০ ব্যবধানে হেরে স্বপ্নভঙ্গ হয় ফুটবল মায়েস্ত্রার।

এবার আর সুযোগ হাতছাড়া করতে চান না ভিনগ্রহের ফুটবলার। রাশিয়া বিশ্বকাপ জিতে স্বপ্ন পূরণ করতে চান ওয়ান্ডারম্যান।
এখনো প্রায় ৬ মাস বাকি রাশিয়া বিশ্বকাপ মাঠে গড়াতে। এরই মধ্যে দল নিয়ে কাটাছেঁড়া শুরু করেছে আর্জেন্টিনা। প্রাধান্য দেয়া হচ্ছে মেসির মতামতকে। ময়দানি লড়াই শুরুর আগেই ভারসাম্যপূর্ণ দল চায় আলবিসেলেস্তেরা।

মেসি বলছেন, ‘আমরা একটি ভারসাম্যপূর্ণ দল নিয়ে ২০১৮ বিশ্বকাপে যাত্রা শুরু করতে চাই। ফুটবলের সবচেয়ে বড় মহাযজ্ঞ শুরু হতে এখনো বেশ কিছুটা সময় বাকি। এর মধ্যেই আমরা সুসংঘবদ্ধ একটি দল পেয়ে যাব। দল গঠনে কাজ চলছে। দলে ব্যাপক পরিবর্তন আসছে।’
ফিফা ডটকমকে পাঁচবারের ফিফা বর্ষসেরা ফুটবলার বলেন, ‘বিশ্বকাপ মাথায় রেখে আমাদের দল গোছানো হচ্ছে। দল নিয়ে আমরা চিন্তামুক্ত থাকতে চাই। দুঃশ্চিন্তা নিয়ে বিশ্ব মঞ্চে উঠতে চাই না। জেনে রাখুন, জাতীয় দলে ব্যাপক পরিবর্তন আসছে।’
আর্জেন্টিনার হয়ে ১২৩টি ম্যাচ খেলেছেন মেসি। সব মিলিয়ে করেছেন ৬১ গোল। দেশটির ইতিহাসে সর্বকালের সর্বোচ্চ গোলদাতাও তিনি।

ফুটবলের কাছে গুরুদক্ষিণা চাইলেন মেসি

লিওনেল আন্দ্রেস মেসি। যার পায়ের জাদু দেখতে মুখিয়ে থাকে পুরো ফুটবল বিশ্ব। সেই বিশ্বসেরা ফুটবলারকে ছাড়া বিশ্বমঞ্চ কে মেনে নিবে? হয়ত মানুষের আবেগ ছুঁয়ে গেছে লিওনেল মেসিকেও। তাইতো এশিয়া, ইউরোপসহ পুরো ফুটবলবিশ্বকে আনন্দে ভাসিয়ে নিজের একক প্রচেষ্টায় রাশিয়া বিশ্বকাপে স্থান পাইয়ে দেন আর্জেন্টিনাকে।
গত বিশ্বকাপে খুব কাছে থেকে ট্রফিটা দেখেছেন ক্ষুদে জাদুকর। জার্মানির কাছে শেষমুহূর্তের হারে স্বপ্নভঙ্গ হয়। ফুটবল ক্যারিয়ারে প্রায় সব কিছুই জিতেছেন, জেতা হয়নি কেবল দেশের হয়ে বিশ্বকাপ। ফুটবলের কাছে মেসির এই ট্রফিটা পাওনা বলেই মনে করেন আলবিসেলেস্তেদের কোচ হোর্হে সাম্পাওলি। মেসিরও আশা, ফুটবল তার এই পাওনাটা শোধ করে দেবে।

এক মৌসুমের সর্বোচ্চ গোলদাতা হওয়ার রেকর্ড, এক পঞ্জিকাবর্ষের সর্বোচ্চ গোলদাতার রেকর্ড, ক্লাবের সর্বোচ্চ গোলদাতার রেকর্ড, আর্জেন্টিনার সর্বোচ্চ গোলদাতার রেকর্ড, স্প্যানিশ লা লিগার সর্বোচ্চ গোলদাতার রেকর্ডসহ আরো কত রেকর্ড গড়েছেন মেসি নিজেরই হয়তো ইয়ত্তা নেই।
মেসির মোহে আবিষ্ট সাবেক বার্সা কোচ গার্দিওলা বলেন, একেক যুগে একেক জন সেরা ফুটবলার থাকে। পেলে তার যুগের সেরা, ম্যারাডোনা তার যুগে, সেভাবে মেসি নিজের যুগে সেরা। তার এই কথার চেয়েও বাড়িয়ে বলেছেন অনেকে। ফুটবলের জাদুকর, ভিনগ্রহের ফুটবলার কত নামই তো লিওনেল মেসির পাশে বসিয়ে দিয়েছেন কতজন।

ক্যারিয়ারে ৬’শর বেশি গোল করেছেন। গোল বা রেকর্ডের সংখ্যা বাদ দিলেও বল পায়ে মাঠে যে জাদু দেখান মেসি সেটা কি ভুলতে পারবে ফুটবল? ফুটবলের প্রচার, প্রসার, জনপ্রিয়তা বাড়াতে এই মেসির বড়ই অবদান। কিন্তু এর বড় কোন প্রতিদান এখনো দিতে পারেনি ফুটবল।
সামনে আরেকটি বিশ্বকাপ। মেসির উপর অনেক দায়িত্ব। এবারের বিশ্বকাপ বাছাইপর্বে দলকে বিপদের মুহূর্তে যেভাবে উদ্ধার করেছেন, আর্জেন্টাইন সমর্থকরা তো বিশ্বসেরা ফুটবলের কাছে একটি ট্রফি চাইতেই পারেন। তবে আর্জেন্টিনা কোচ সাম্পাওলির মতে, মেসির কাছে ট্রফি পাওনা নয়, ফুটবলের কাছেই ট্রফিটা পাওনা মেসির।

কোচের এমন দাবির বিষয়ে জানতে চাওয়া হলে হেসে দেন মেসি। উত্তরটাও দেন মজা করেই, ‘আশা করি, ফুটবল আমার এই পাওনাটা শোধ করে দেবে। আমি শুনেছি, সাম্পাওলি এমনটা বলেছেন। আসলে তিনি আমাকেও এটা বলেছেন।’
এবার বিশ্বকাপটা জিতলে গতবারের ক্ষতে প্রলেপ দিতে পারবেন মেসি। তবে আর্জেন্টাইন জাদুকর নিজে জানালেন, জার্মানি দুঃখটা কখনই মন থেকে মুছতে পারবেন না। ২০১৪ বিশ্বকাপের ফাইনালে জার্মানির কাছে হার নিয়ে বার্সা তারকা বলেন, না, আমার মনে হয় না এই ক্ষত শুকাবে। মনে হয়, যা ঘটেছে এটা নিয়েই বাঁচতে হবে আমাকে। এটা সবসময়ই আমার মনে থাকবে। বিশ্বকাপ দারুণ সব মুহূর্ত উপহার দিয়েছে আমাকে, দিয়েছে কষ্টও।
সময় অনেক কিছু বদলে দেয়। আপনার ফুটবলও কি বদলে গিয়েছে? মেসি বলে দিচ্ছেন, অবশ্যই বদলেছে। সময়ের সঙ্গে সঙ্গে যেটা হওয়া স্বাভাবিক। নিজের খেলায় উন্নতিও হয়। আপনি অনেক কিছু শিখতে পারেন। আমার বয়স যত বেড়েছে, খেলার উন্নতিও হয়েছে।

যে উন্নতির সুফল পেয়েছে আর্জেন্টিনা জাতীয় দল। ফের উঠে আসে ইকুয়েডরের বিরুদ্ধে সেই ম্যাচের কথা। জানতে চাওয়া হয়, মরাবাঁচা ওই ম্যাচে কী ভেবে মাঠে নেমেছিলেন? সেরাটা দিয়ে টিমকে জেতাতেই হবে? মেসি শুধু বলেন, সে রকম কিছু ভেবে মাঠে নামিনি। শুধু এটুকু বলব, মাঠে সেদিন যা ঘটেছিল, সেটা আমার ফুটবল জীবনের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ মুহূর্ত হয়ে থাকবে। আপনার কাছে আর একটা প্রশ্নই আছে। ফিফার প্রশ্নকর্তা বলে চলেন, এই বাক্যটা শেষ করুন। ২০১৮ সালে লিওনেল মেসি হবে…
(একটু ভেবে) ‘‘আমি তৃতীয়বারের জন্য বাবা হব!’’ বলে দিলেন মেসি। অল্প একটু হেসে।

Comments

comments

আজকের সব খবর

error: Content is protected !!