১৯শে জানুয়ারি, ২০১৮ ইং, ৬ই মাঘ, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, ২রা জমাদিউল-আউয়াল, ১৪৩৯ হিজরী

বিশ্বকাপ থেকে বাদ পড়ার শঙ্কায় স্পেন!

ডিসেম্বর ১৭, ২০১৭, সময় ৭:০১ পূর্বাহ্ণ

২০১০ সালের বিশ্বচ্যাম্পিয়ন স্পেন। এবার তারাই রাশিয়া বিশ্বকাপ থেকে বাদ পড়ার শঙ্কায় রয়েছে। সভাপতি অ্যাঞ্জেল মারিয়া ভিলারকে বহিষ্কার করায় এমন শঙ্কায় পড়েছে স্পেনের ফুটবল ফেডারেশন(আরএফইএফ)। যদিও এর আগেও একবার এমন শঙ্কায় পড়েছিল স্পেন। সেবার প্রমাণিত না হওয়ায় বেঁচে যায় তারা। পরে তারা চ্যাম্পিয়ন হয়েই শিরোপা ঘরে তুলে।

সাবেক এই সভাপতির অভিযোগের প্রেক্ষিতে তদন্ত শুরু করেছে আন্তর্জাতিক ফুটবলের নিয়ন্ত্রক সংস্থা ফিফা। তদন্তে অভিযোগ প্রমাণিত হলে স্পেনকে আসন্ন রাশিয়া বিশ্বকাপ থেকে বাদ দেয়ারও হুমকি দিয়েছে তারা।

বহিষ্কৃত সভাপতির অভিযোগে ফিফা জানতে পেরেছে যে, আরএফইএফের কার্যক্রমে রাজনৈতিক হস্তক্ষেপ হচ্ছে। যেটা ফিফার আইনের পরিপন্থী।
অভিযোগ আমলে নিয়ে স্পেনের ফুটবল ফেডারেশনকে (আরএফইএফ) সতর্ক করে দিয়েছে ফিফা। তারা জানিয়েছে, যদি রাজনৈতিক হস্তক্ষেপের বিষয়টি প্রমাণ হয়, তবে নিষিদ্ধ করা হবে স্পেনকে। এতে আসন্ন বিশ্বকাপে অংশ নিতে পারবে না ২০১০ সালের চ্যাম্পিয়নরা।
একই রকম অভিযোগে নিষিদ্ধ হয়েছিল কুয়েত। এমনকি ২০১০ সালে তৎকালীন ফিফা সভাপতি সেপ ব্ল্যাটার নিষেধাজ্ঞার হুমকি দিয়েছিলেন এই স্পেনকেও। তবে তখন দক্ষিণ আফ্রিকা বিশ্বকাপের আগে তাদের বিরুদ্ধে উঠা অভিযোগের সত্যতা পাওয়া যায়নি।

রাশিয়া বিশ্বকাপ জিতলেই ৩ কোটি টাকা!

বিশ্বকাপ শিরোপা ধরে রাখতে পারলে বোনাস হিসেবে তিন লাখ ৫০ হাজার ইউরো (প্রায় তিন কোটি টাকা) করে পাবে জার্মান ফুটবল দলের প্রত্যেক খেলোয়াড়। এই ঘোষণা দিয়েছে জার্মান ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন(ডিএফবি)।

পঞ্চম বিশ্বকাপ শিরোপা জয়ের জন্য বোনাসের পরিমাণ বাড়ানোর দাবির পরিপ্রেক্ষিতে এই ঘোষণা দিয়েছে জার্মান ফুটবলের নিয়ন্ত্রক কর্তৃপক্ষ।
এর আগে ২০১৪ সালে ব্রাজিল বিশ্বকাপের শিরোপা জয়ের কারণে কোচ জোয়াকিম লো এবং তার স্কোয়াডের প্রত্যেক সদস্য তিন লাখ ইউরো করে বোনাস পেয়েছিল।
শিরোপা ধরে রাখার মিশন নিয়ে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন জার্মানি বিশ্বকাপে তাদের গ্রুপ পর্বের প্রথম ম্যাচ খেলতে মাঠে নামবে আগামী ২০১৮ সালের ১৭ জুন।
মস্কোতে অনুষ্ঠিতব্য এফ গ্রুপের ম্যাচে তাদের প্রতিপক্ষ মেক্সিকো। গ্রুপের বাকি দল দুটি হচ্ছে সুইডেন ও দক্ষিণ কোরিয়া। ২০০৬ ফিফা বিশ্বকাপের পর প্রথমবারের মতো ইউরোপের মাটিতে অনুষ্ঠিত হবে ফুটবলের এই মহাযজ্ঞ।
ডিএফবি সভাপতি রেইনার্ড গ্রিনডেল বলেন, আমাদের খেলোয়াড়দের জন্য জার্মানির ফুটবল ইতিহাসে প্রথমবারের মতো পরপর বিশ্বকাপ শিরোপা জয়ের ঐতিহাসিক হাতছানিটিই হচ্ছে একটি বড় অনুপ্রেরণা।

তিনি বলেন, অমরত্ব ও স্মরণীয় হয়ে থাকার জন্যই তারা প্রচেষ্টা চালাবে। এটি নিশ্চিত করার জন্যই এই আর্থিক বোনাস। আপনি যদি দলটির দিকে তাকান, তাহলে বুঝবেন স্পোর্টিং চ্যালেঞ্জ নেয়াটাই তাদের প্রধান লক্ষ্য। অর্থ আয় করা নয়।
একটি টুর্নামেন্ট দল হিসেবেই বেশি খ্যাতি রয়েছে জার্মানির। সেখানে তারা কমপক্ষে কোয়ার্টার ফাইনালে না পৌঁছানো পর্যন্ত এফএ’র কাছ থেকে কোনো প্রাইজমানি পায় না। কোয়ার্টার ফাইনাল নিশ্চিত করতে পারলে তারা ৭৫ হাজার ইউরো করে বোনাস লাভ করে।

এভাবে ধাপে ধাপে বাড়তে থাকে ওই অর্থের পরিমাণ। যেমন সেমিফাইনালের জন্য এক লাখ ২৫ হাজার ইউরো, তৃতীয় স্থানের জন্য এক লাখ ৫০ হাজার ইউরো এবং ফাইনালে হেরে গেলে বা রানার্সআপের জন্য দুই লাখ ইউরো।

আগামী বছরের ১৪ জুন থেকে ১৫ জুলাই অনুষ্ঠিত হবে রাশিয়া বিশ্বকাপের ২১তম আসর। রাশিয়ার ১১ শহরের ১২টি স্টেডিয়ামে গড়াবে মেসি-নেইমার-রোনালদোদের ফুটবলযুদ্ধ।
১৫ জুলাই মস্কোর লুঝনিকি স্টেডিয়ামে শিরোপা ফয়সালার মধ্য দিয়ে শেষ হবে বিশ্বকাপ উত্তেজনা।

Comments

comments

আজকের সব খবর

error: Content is protected !!