Monday , April 23 2018
Home / অপরাধ জগৎ / ‘প্রকৌশলীরাই পাঁচ শতাংশ ঘুষ নেন, টাকার অঙ্কে বছরে ১০ হাজার কোটি’

‘প্রকৌশলীরাই পাঁচ শতাংশ ঘুষ নেন, টাকার অঙ্কে বছরে ১০ হাজার কোটি’

বস্ত্র ও পাট প্রতিমন্ত্রী মির্জা আজম বলেছেন, ঠিকাদারি কাজে সারা দেশে উন্নয়ন খাতে বরাদ্দের মধ্যে শুধু প্রকৌশলীরাই পাঁচ শতাংশ টাকা ঘুষ নেন, যা টাকার অঙ্কে দাঁড়ায় বছরে ১০ হাজার কোটি টাকা।

২১ ডিসেম্বর বৃহস্পতিবার জামালপুরে আয়োজিত ‘টেকসই উন্নয়ন অভীষ্ট (এসডিজি) অর্জনে স্থায়ীকরণ, বিনিয়োগ পরিকল্পনা এবং ব্যক্তি খাতে উদ্যোক্তা সৃষ্টি ও দক্ষতা উন্নয়ন’ বিষয়ক কর্মশালার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে এ অভিযোগ করেন তিনি।

প্রাতিষ্ঠানিক দুর্নীতি টেকসই উন্নয়ন বাধাগ্রস্ত করছে বলে অভিযোগ করে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি বলেন, ‘টেকসই উন্নয়নের ক্ষেত্রে সবচেয়ে বড় বাধা হলো দুর্নীতি। প্রাতিষ্ঠানিক দুর্নীতি আমাদের উন্নয়নকে বাধাগ্রস্ত করছে।’

অনুষ্ঠানে এ সব দুর্নীতি বন্ধ করতে এখনই রাষ্ট্রীয়ভাবে সিদ্ধান্ত নেওয়ার প্রয়োজনীয়তার কথা তুলে ধরেন এ সংসদ সদস্য।
সাব রেজিস্ট্রি অফিসে দুর্নীতি গেড়ে বসেছে জানিয়ে তিনি বলেন, সাব-রেজিস্ট্রার অফিসে দুর্নীতি ওপেন সিক্রেটভাবেই চলছে। টিআর (টেস্ট রিলিফ), কাবিখা (কাজের বিনিময়ে খাদ্য) প্রকল্প বাস্তবায়নেও দিতে হয় পার্সেন্টেজ।

সাম্প্রতিক সময়ের শিক্ষা খাতে সবচেয়ে অালোচিত ইস্যু প্রশ্ন ফাঁস সম্পর্কে বলতে গিয়ে তিনি বলেন, দুর্নীতি ভয়াবহ রূপ নিয়েছে শিক্ষা খাতেও। মাদ্রাসায় এই দুর্নীতি আরও বেশি। এক শ্রেণির শিক্ষক নৈতিকতা হারিয়ে ছাত্রদের পাস করাতে নকল সাপ্লাই দিচ্ছেন। এটা মেনে নেওয়া যায় না।

তবে দুর্নীতি সবক্ষেত্রে ছেয়ে গেলেও সমাধান হাতের নাগালে রয়েছে জানিয়ে তিনি বলেন, সব মিলিয়ে প্রাতিষ্ঠানিক দুর্নীতি আমাদের টেকসই উন্নয়নের অগ্রযাত্রাকে বাধাগ্রস্ত করছে। দুর্নীতি প্রতিরোধে উচ্চপর্যায়ের রাজনৈতিক নেতাদের অঙ্গীকার করতে হবে। রাজনৈতিক নেতারা অঙ্গীকার করলে দুর্নীতি অনেকটাই কমে আসবে বলে।
অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন ময়মনসিংহ বিভাগের বিভাগীয় কমিশনার জি এম সালেহ উদ্দিন। এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন প্রধানমন্ত্রীর এসডিজি বিষয়ক মুখ্য সমন্বয়ক আবুল কালাম আজাদ, জামালপুর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট বাকী বিল্লাহ, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ফারুক আহমেদ চৌধুরী ও জেলা প্রশাসক আহমেদ কবীর প্রমুখ।

Check Also

বিডিআর বিদ্রোহ মামলার মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত ১৫২ আসামির আপিলের রায় আগামীকাল ~

২০০৯ সালের ২৫ ও ২৬ ফেব্রুয়ারি তৎকালীন বিডিআরের সদর দপ্তরে পিলখানা ট্র্যাজেডিতে ৫৭ সেনা কর্মকর্তাসহ …