১৯শে জানুয়ারি, ২০১৮ ইং, ৬ই মাঘ, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, ২রা জমাদিউল-আউয়াল, ১৪৩৯ হিজরী

কোলে নিয়ে আদর; অতঃপর ৭ মাসের ছেলেকে আছাড় মেরে হত্যা

ডিসেম্বর ২৩, ২০১৭, সময় ৫:১০ অপরাহ্ণ

শ্বশুর বাড়িতে এসে ৭ মাস বয়সী শিশু জুনায়েদকে আছাড় মেরে হত্যা করলো এক পাষণ্ড বাবা।

গত সোমবার (২৭ নভেম্বর) দুপুর ১২ টার দিকে কালিগঞ্জ উপজেলার কৃষ্ণনগর ইউনিয়নের কালিকাপুর গ্রামে নৃশংস এ ঘটনাটি ঘটে।

স্থানীয়রা জানান, শ্যামনগর উপজেলার আটুলিয়া ইউনিয়নের হাওলভাঙ্গী গ্রামের মৃত শাহাদাত মোড়লের ছেলে আব্দুল কাদের ও তার স্ত্রী আছমা খাতুনের মধ্যে পারিবারিক কলহের কারণে আসমা খাতুন কালিকাপুর গ্রামে তার পিতা মোনাম সরদারের বাড়িতে দীর্ঘদীন যাবৎ অবস্থান করছিল।

সোমবার দুপুরে হঠাৎ আব্দুল কাদের তার শ্বশুর বাড়িতে আসে এবং তার ৭ মাস বয়সের শিশু জুনায়েদকে কোলে নিয়ে আদর করতে শুরু করে। আদর করতে করতে সে শিশু জুনায়েদকে পুকুর পাড়ে নিয়ে যায় এবং আচমকা পুকুরের শানের গায়ে আছাড় মারতে শুরু করে।

এসময় কান্নার আওয়াজ শুনে শিশু জুনায়েদের মা আছমা খাতুন ও প্রতিবেশিরা ছুটে আসে এবং মারাত্মক আহত অবস্থায় জুনায়েদকে উদ্ধার করে দ্রুত শ্যামনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়।

কিন্তু সেখানের কর্তব্যরত ডাক্তার জুনায়েদকে সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে স্থানান্তর করেন। চিকিৎসাধীন অবস্থায় দুপুর ২ টার দিকে জুনায়েদ সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে মারা যায়।

এ ঘটনায় স্থানীয়রা কাদেরকে আটক করে থানা পুলিশের হাতে সোপর্দ করেছেন।

কালিগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সুবীর দত্ত ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ‘ঘাতক পিতা কাদেরকে আটক করে স্থানীয়রা পুলিশে সোপার্দ করেছেন। এ ব্যাপারে থানায় হত্যা মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।’

সাতক্ষীরার সীমান্ত সংলগ্ন ইছামতি নদী থেকে ওবায়দুল ইসলাম (২১) নামের এক যুবকের মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। শনিবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে ইছামতি নদীর হাড়দ্দাহ এলাকা থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

নিহত ওবায়দুল ইসলাম জেলার দেবহাটা উপজেলার উত্তর পারুলিয়া গ্রামের অদুদ গাজীর ছেলে।

সাতক্ষীরা সদর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) জানান, স্থানীয়দের দেওয়া খবরের ভিত্তিতে ইছামতি নদী থেকে ওবায়দুল ইসলাম নামের এক যুবকের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। মরদেহ মর্গে পাঠানোর প্রক্রিয়া চলছে।

এদিকে, খবর পেয়ে সকালে হাড়দ্দাহ গিয়ে মরদেহ সনাক্ত করেছেন ওবায়দুল ইসলামের বড় ভাই অলিউল ইসলাম।

তিনি জানান, গত ১৮ ডিসেম্বর বাবার সাথে অভিমান করে বাড়ি থেকে চলে যায় ওবায়দুল। শনিবার স্থানীয়দের দেয়া খবর পেয়ে এসে দেখি তার লাশ পড়ে রয়েছে।

Comments

comments

আজকের সব খবর

error: Content is protected !!